ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণ টি-টোয়েন্টিতে খেলতে নামলেই বাংলাদেশ খেই হারিয়ে ফেলে। দিনের পর দিন ম্যাচের পর ম্যাচ খেললেও পারফরম্যান্সের গ্রাফ নিম্নমুখী। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তাদের মাটিতে হারের পর এবার মিশন এশিয়া কাপ। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে সামনে রেখে এবারের টুর্নামেন্টটি হচ্ছে এই সংস্করণেই। এই টুর্নামেন্টে সামর্থ্যের চেয়ে শতভাগ বেশি দেওয়ার অঙ্গীকার করেছে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা।

শুক্রবার (২৬ আগস্ট) রাতে আরব আমিরাত থেকে পাঠানো ভিডিও বার্তায় এমন অঙ্গীকারের কথা জানিয়েছেন ওপেনার ব্যাটসম্যান এনামুল হক বিজয়। তার ভাষ্য, ‘আমরা সবাই মনে করছি দারুণ একটি প্রভাব ফেলতে পারবো। টিমকে যতটুক দেয়ার সামর্থ্য আছে তার থেকে শতভাগ বেশি দেয়ার চেষ্টা করবো সবাই। এই অঙ্গীকার সবাই করেছে, এবং এটা বিশ্বাস করি যে আমরা পারবো।’

টি-টোয়েন্টিতে সাফল্য পেতে মরিয়া বাংলাদেশ। নেতৃত্বের ভার এসেছে দলের সবচেয়ে অভিজ্ঞ ও বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের হাতে। রাসেল ডমিঙ্গো হারিয়েছেন দায়িত্ব। এসেছেন শ্রীধরন শ্রীরাম। এনামুল জানিয়েছেন টেকনিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্ট শ্রীরামের সঙ্গে বৈঠক করে কার কাজ কী বুঝে নিয়েছে।

এনামুল বলেন, ‘আসলে শ্রীরাম আসার পর আমাদের দারুণ একটা মিটিং হয়েছে। বোলিং-ব্যাটিং এবং স্পিন বিভাগ, ফিল্ডিং বিভাগ আমরা কিভাবে কী করব, এটা আসলে আমরা পরিষ্কার মনোভাব নিয়ে আছি। প্রতিটা ক্রিকেটার জানে তাদের কাজটা কী।’

‘সাকিব ভাই থেকে শুরু করে টিমের সিনিয়র-জুনিয়র ক্রিকেটার যারা আছে সবাই আন্তরিক, এবং খুবই মনোযোগী অনুশীলনে। দুই দিন অনুশীলন করে মনে হচ্ছে আমরা খুব ভালো প্রস্তুতি নিচ্ছি। পরিকল্পনা অনুযায়ী কার কি রুটিন, কার কি দায়িত্ব এগুলি খুবই মনোযোগের সঙ্গে করার চেষ্টা করছি’-আরও যোগ করেন এনামুল।

দুবাই পৌঁছে একদিন বিশ্রামের পর বাংলাদেশ দুই দিনের প্রস্তুতি নিয়েছে। উভয় দিন আইসিসি একাডেমি মাঠে ফ্লাডলাইটের আলোতে স্থানীয় সময় রাত ৯টা থেকে অনুশীলন করেন সাকিবরা। শনিবার বিশ্রামে থাকবেন ক্রিকেটাররা। এদিন থেকেই আফগানিস্তান-শ্রীলঙ্কার ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে টুর্নামেন্ট। বাংলাদেশের ম্যাচ শুরু হবে ৩০ আগস্ট থেকে। শারজাহ এই ম্যাচের আগে সাকিবরা নিজেদের ঝালিয়ে নিতে আরও দুই দিন সময় পাবেন। এনামুল মনে করছেন তাদের জন্য এই প্রস্তুতি দারুণ কাজে দেবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here